পাবনার মহিন উদ্দিন সৌদি আরবের খেজুর চারা উৎপাদন করে সফল

পাবনার মহিন উদ্দিন সৌদি আরবের খেজুর চারা উৎপাদন করে সফল

মো. মিঠুন শেখ মিঠু, পাবনা।

সৌদি আরবের খেজুরের বিখ্যাত বিভিন্ন প্রজাতির চাঁরা উৎপাদন করে সফল হয়ে দেখিয়েছেন পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার আতাইকুলা ইউনিয়নের রঘুনাথপুর মৃর্ধাপাড়া গ্রামের মহিন উদ্দিন।

তিনি পেশায় একজন ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি। টেলিভিশনে খেজুর বাগানের প্রতিবেদন দেখে তার শখ জাগে নার্সারি করার। তার ছোট ভাই সৌদি আরবে চাকরি করেন। ভাইয়ে শখ পূরণ করতে সৌদি আরবের স্থায়ী নার্সারি মালিকদের সাথে যোগাযোগ করে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেন খেজুর বীজ ও সাথে চারা উৎপাদনের সকল কেমিক্যাল,হরমোন ও ম্যাটেরিয়ালস।

মহিন উদ্দিনকে চাকরির জন্য জেলার বাহিরে যেতে হয়। সে সময় তার স্ত্রী চারা পরিচর্যা ও বিক্রিসহ সকল কাজ পরিচালনা করেন।

তার নার্সারিতে এখনও ২০০০ গাছের চারা আছে। যার মধ্যে আজোয়া,মরিয়ম,নাখাল,বারহী জাতের সৌদি খেজুর গাছ রয়েছে।

এক বছরের মধ্যে তিনি হাজার হাজার টাকার খেজুরের চারা বিক্রয় করেছেন। দেশি খেজুরের চারার চেয়ে সৌদি আরবের এই খেজুরের চাহিদা ৮ গুণ বলে জানিয়েছেন মহিন উদ্দিন।

মহিন উদ্দিনের খেজুর বাগান ও নার্সারি দেখতে প্রতিদিনই ভিড় করছে দূর-দূরান্ত থেকে নানা বয়সী মানুষ। মহিন উদ্দিন বলেন, এটি মূলত পবিত্র দেশের খেজুর। খেজুর চাষে আগ্রহের এটাও একটা কারণ। অর্থনৈতিকভাবেও এটা অনেক লাভবান। আমি ইন্টারনেটের মাধ্যমে দেখে দেখে চাষ শিখেছি। ইউটিউবের মাধ্যমে মহিন উদ্দিন সৌদি খেজুরে চাষ শিখে, এখন তার নার্সারিতে আযোয়া, মরিয়ম, নাখাল ও বারহী জাতীয় চার জাতের দুই হাজার চারা রয়েছে। যার বাজার মূল্য কয়েক লক্ষ টাকা।

নিউজটি শেয়ার করুন




themesads

© All rights reserved © 2020 crimefolder.com
কারিগরি সহযোগীতায়: Creative Zone IT