ভান্ডারিয়ায় ত্রাণের ঘর পতে মেম্বারকে দেয়া টাকার সুদ গুনছেন ভুক্তভোগী নারী

ভান্ডারিয়ায় ত্রাণের ঘর পতে মেম্বারকে দেয়া টাকার সুদ গুনছেন ভুক্তভোগী নারী

মো. ফেরদৌস মোল্লা, পিরোজপুর প্রতিনিধি।

পিরোজপুরে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার ভিটাবাড়ীয়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আ. জলিল শিকদার একই গ্রামের এক অসহায় নারীকে ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে ৬ হাজার টাকা আত্মসাত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছ। ভুক্তভোগী কল্পনা রানী ভান্ডারিয়া প্রেসক্লাবে লিখিত অভিযোগে জানান উপজেলার ভিটাবাড়ীয়া ইউনিয়নের উত্তর শিয়ালকাঠী গ্রামের হতদরিদ্র দেবব্রত মন্ডলের স্ত্রী তিনি।

স্বামীর অভাব অনটনের জন্য তার পরিবার ভাঙা ঘরে অতিকষ্টে জীবন যাপন করছেন। তিনি স্থানীয় ইউপি সদস্য আ. জলিল শিকদারের কাছে একটি সরকারি ঘরের জন্য গেলে ঘর পাইয়ে দেয়ার বিনিময়ে ইউপি সদস্য তার কাছে ১০ হাজার টাকা দাবী করেন। অভাবী কল্পনা শত কষ্টেও দাবীকৃত টাকা সংগ্রহ করতে না পেরে এক পর্যায়ে অন্যের কাছ থেকে ৬ হাজার টাকা সুদে এনে ইউপি সদস্যের হাতে তুলে দেন এবং বাকী ৪ হাজার টাকা ঘর বরাদ্দ পাওয়ার সময় দেয়ার কথা হয়।

দীর্ঘ দেড় বছর অতিবাহিত হলেও আজও তাকে ঘর দেয়নি ইউপি সদস্য। আর তার দেয়া টাকাও ফেরত দেননি। কল্পনা বলেন, সুদে আনা সেই টাকার সুদ আজও গুনছেন তিনি। কিন্তু ঘরের কোন খবর নেই। এ ঘটনায় ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে টাকা ফেরৎ ও তার বিচার দাবী করেন।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আ. জলিল শিকদার কোন টাকা গ্রহন করেন নাই বলে দাবী করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন




themesads

© All rights reserved © 2020 crimefolder.com
কারিগরি সহযোগীতায়: Creative Zone IT