কুয়াকাটায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরায় ৩ জেলেকে জরিমানা

কুয়াকাটায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরায় ৩ জেলেকে জরিমানা

কুয়কাটা থেকে আবুল হোসেন রাজু:
কুয়াকাটার গঙ্গামতিতে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বঙ্গোপসাগরে মা-ইলিশ ধরায় তিন জেলেকে ১৫হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার সকাল ১০ টার দিকে কুয়াকাটা মহিপুর ও গঙ্গামতি এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) কলাপাড়া জগৎবন্ধু মন্ডলের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে মৎস রক্ষা ও সংরক্ষণ আইন,১৯৫০ এর ৪ ধারা লংঘন ৫(১) অনুযায়ী তাদের জরিমানা করে।
মাছ শিকারে যাওয়া জেলেরা হলো মহিপুর থানার নতুনপাড়া গ্রামের মো. মফেজ ফরাজীর ছেলে মো. ফেরদৌস ফরাজী, পশ্চিম চাপলি গ্রামের মোহাম্মাদ খলিফার ছেলে সোহাগ খলিফা, নতুনপাড়া গ্রামের মো. কুদ্দুস মুসুল্লীর ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম।
কুয়াকাটা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (উপ-পরিদর্শক) মো. মাহমুদ হোসেন মোল্লা বলেন, মঙ্গলবার সকাল থেকে আলীপুর, মহিপুর, কুয়াকাটা, গঙ্গামতি, চাড়িপাড়াসহ উপকূলের বিভিন্ন স্থানে নৌ ফাঁড়ি পুলিশের সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমুদ্রে মা ইলিশ রক্ষায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে তিন জেলেকে ১৫হাজার টাকা জরিমানা করেন।
তিনি আরও বলেন, ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ইলিশের প্রজনন মৌসুম থাকবে। এ সময় উপকূলের নদ-নদী এবং বঙ্গোপসাগরে ইলিশ মাছ ধরতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এ উদ্যোগ সফল করতে গত এক সপ্তাহ ধরে প্রচারণা চালানো হয়েছে।
ইলিশের প্রজনন সময়ে সারা দেশে ইলিশ আহরণ, পরিবহণ, মজুদ, বাজারজাত করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। এ সময় যদি কেউ আইন অমান্য করে তাঁকে এক বছর থেকে সর্বোচ্চ দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড অথবা ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা যাইবে।

নিউজটি শেয়ার করুন




themesads

© All rights reserved © 2020 crimefolder.com
কারিগরি সহযোগীতায়: Creative Zone IT