যৌন নিপীড়নের ঘটনায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ

যৌন নিপীড়নের ঘটনায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ

বখাটেদের হাতে যৌন নিপীড়নের শিকার হয়ে বরগুনায় গলায় ফাঁস দিয়ে এক স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ উঠেছে। অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ওই ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ, রাকিব ও কয়েকজন যুবক ওই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন করে। বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাতে বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের পূর্ব বুড়িরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মিম বরগুনা সদর উপজেলার বুড়ির চর ইউনিয়নের পূর্ব বুড়িরচর গ্রামের বেল্লাল গাজীর মেয়ে।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীর চাচার বাড়ির সামনে তাকে একা পেয়ে বখাটে রাকিব নিপীড়ন করে। পরে মায়ের কাছে বলায় শিক্ষার্থীর মা গিয়ে বখাটে রাকিবকে জুতা দিয়ে মারধর করে। পরে বিষয়টি এলাকার লোকজন জানাজানি হওয়ায় রাতে ওই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করে। পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করার জন্য বরগুনা মর্গে নিয়ে আসে।

শিক্ষার্থীর মা বলেন, আমার মেয়ে স্কুলে যাওয়ার পথে বিভিন্ন সময়ে উত্ত্যক্ত করতো বখাটে মনির। এ বিষয়ে বরগুনার সদর থানায় গত ৬ মাস আগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মনির হলাদারকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করি। সেই মামলায় মনিরের নামে চার্জশিটও দেওয়া হয়। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। আর মনির এখনও পলাতক। মামলার পর থেকে মনিরের ভাই জহির ও ভাগ্নি জামাই চুন্নু আমাদেরকে বিভিন্ন সময়ে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে। গতকাল মনিরের ভাই জহির ও ভাগ্নি জামাই চুন্নু রাকিব নামের একটি ছেলেকে দিয়ে আমার মেয়েকে অপমান করায়। এই লজ্জার কারণেই আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে সরেজমিনে পরিদর্শন করেছি। এঘটনায় অভিযুক্তদের আটক করতে অভিযান অব্যহত আছে।

তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন।

নিউজটি শেয়ার করুন




themesads

© All rights reserved © 2020 crimefolder.com
কারিগরি সহযোগীতায়: Creative Zone IT